সততা ও আদর্শের  প্রতিক ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা কমরেড দিলিপ দত্ত 

সততা ও আদর্শের  প্রতিক ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা কমরেড দিলিপ দত্ত 
ছবিঃ সংগৃহীত

মো. নজরুল ইসলাম।। মানিকগঞ্জ।।আদর্শের মৃত্যু নেই,ন্যায় ও ইনসাফী মানুষের ভয় নেই। আজ ভোড় ৪.০০ ঘটিকায় মানিকগঞ্জ ঘিওর অঞ্চলের তেরশ্রী গ্রামের কৃতিমান পুরুষ জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান মহান মুক্তিযুদ্ধে ন্যাপ কমিউনিস্ট ছাত্র ইউনিয়ন বিশেষ গেড়িলা বাহিনীর রনাঙ্গের বীর সেনানী বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি সিপিবি ঘিওর উপজেলা শাখার সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কমরেড দিলিপ দত্ত ৭৩ বছর বয়সে  শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

আজ সকাল ১১.০০ ঘটিকায় ঘিওর তেরশ্রী কালী নারায়ন ইনিস্টিউটে মরহুমের রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় গার্ড অব অনার ও শেষকৃত্য অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। 
অনুষ্ঠানে ঘিওর উপজেলার ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জনাব ওয়াদিয়া সাবাব এর সভাপতিত্বে সংক্ষিপ্ত আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন ঘিওর থানা অফিসার্স ইনচার্জ  জনাব রিরাজ উদ্দিন বিপ্লব,বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি সিপিবি মানিকগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি অধ্যাপক আবুল ইসলাম সিকদার, সাধারণ সম্পাদক কমরেড মুজিবুর রহমান মাস্টার, সহকারী সাধারণ সম্পাদক কমরেড আরশেদ আলী মাস্টার, বাংলাদেশ প্রগতি লেখক সংঘ মানিকগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক কমরেড মো. নজরুল ইসলাম, বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন মানিকগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি কমরেড আসাদুজ্জামান সেন্টু, ঘিওর প্রেস ক্লাবের সভাপতি জনাব রামপ্রসাদ দিপু,ছাত্র ইউনিয়ন মানিকগঞ্জ জেলা সংসদের সাবেক সভাপতি কমরেড আনোয়ার হোসেন দুর্জয়, কবি আব্দুস সাত্তার প্রমুখ। 
বক্তারা বলেন কমরেড দিলিপ দত্ত ছিলেন আদর্শ ও সততার অনন্য প্রতিক। তিনি সাধারণ জীবন যাপন করতেন। সারাদিন কমিউনিস্ট পার্টির লাল পতাকা নিয়ে মেহনতী মানুষের কথা বলতেন। তিনি নারী ও  শিশুদের অধিকার সংরক্ষণে মহিলা পরিষদ ও খেলাঘর, ছাত্রদের অধিকার সংরক্ষণে ছাত্র ইউনিয়নের নীল পতাকা নিয়ে ছাত্রদের সাথে স্কুল কলেজে ঘুরতেন। কৃষক ক্ষেতমজুরদের সংগঠিত করতে গ্রামেগঞ্জের মাঠে ঘাটে আমৃত্যু লড়াই সংগ্রাম করেছেন।  তিনি নতুন প্রজন্মের আইকন। আমরা বিশ্বাস করি রক্ত পতাকা হাতে নিয়ে  তিনি যে শ্রম দিয়েছেন সেটি বৃথা যেতে পারে না। মেহনতী মানুষের বিজয় হবেই।