সিত্রাংয়ের প্রভাবে মীরসরাইয়ে ড্রেজার ডুবে ৮ শ্রমিকের মৃত্যু ৬ জনের লাশ উদ্ধার 

সিত্রাংয়ের প্রভাবে মীরসরাইয়ে ড্রেজার ডুবে ৮ শ্রমিকের মৃত্যু ৬ জনের লাশ উদ্ধার 
ছবি: সংগৃহীত

মোহাম্মদ হাসান।। ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের প্রভাবে চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ের সাগরে থাকা ড্রেজার ডুবে নিখোঁজ হওয়া আট শ্রমিকই নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে ছয়জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার রাতে তাদের লাশ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স কর্মীরা। গতকাল সোমবার রাত ১০টার দিকে তারা নিখোঁজ হন।

নিহতরা হলেন শাহীন মোল্লা (৩৮), ইমাম মোল্লা (৩২), মাহমুদ মোল্লা (৩২), আলামিন (২১), তারেক, আবুল বশর (৪৫)। অপর দুজনের নাম জানা যায়নি। নিহত সবার বাড়ি পটুয়াখালী জেলার জৈনকাঠি মোল্লাবাড়ি থানায়।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানায়, মীরসরাইয়ের ১৬ নম্বর সাহেরখালি ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের ৩ নম্বর বসুন্ধরা এলাকায় সাগরের মধ্যে সৈকত-২ নামের ড্রেজারটি রাখা ছিল। ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের প্রভাবে সাগরে জোয়ারের পানির উচ্চতা বৃদ্ধির পাশাপাশি ঝড়ো হাওয়ায় পানিতে ভেসে গিয়ে ড্রেজারটি ডুবে যায়।

ড্রেজারে থাকা শ্রমিক আব্দুস সালাম বলেন, ‘ড্রেজারে আমিসহ নয়জন শ্রমিক ছিলাম। দুর্যোগের কথা শুনে সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে আমি ড্রেজার থেকে নেমে নিরাপদ স্থানে চলে আসি। বাকিরা ড্রেজারেই অবস্থান করছিলেন।’

ড্রেজারের ব্যবস্থাপক রেজাউল করিম বলেনান, ‘ঘটনাস্থলে আরও ছয়টি ড্রেজার রাখা ছিল। সতর্কতা সংকেত পেয়ে সব শ্রমিক নিরাপদ স্থানে চলে গেলেও দুর্ঘটনায় পতিত ড্রেজারের আট শ্রমিক আসেননি।

তিনি বলেন, ‘ড্রেজারের বালু উত্তোলনকারী শ্রমিকরা দিন-রাত ড্রেজারে অবস্থান করে থাকেন। সেখানে খাওয়া-দাওয়া ও ঘুমেরও ব্যবস্থা রয়েছে।’

মীরসরাই ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার ইমাম হোসেন বলেন, নিহত আটজনের মধ্যে ছয়জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বাকি দুজনের লাশ উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।