স্বেচ্ছাসেবী তরুণকে ধর্ষণ, সবুজ বাংলাদেশের সেক্রেটারি ইসমাইল হোসেন বাবু কারাগারে 

স্বেচ্ছাসেবী তরুণকে ধর্ষণ, সবুজ বাংলাদেশের সেক্রেটারি ইসমাইল হোসেন বাবু কারাগারে 
ছবি: সংগৃহীত
নিজস্ব প্রতিবেদক।।লক্ষ্মীপুরে মো. আরমান নামে এক স্বেচ্ছাসেবীকে ধর্ষণের (বলৎকার) অভিযোগে সামাজিক সংগঠন সবুজ বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন বাবুকে গ্রেফতার করেছে সদর মডেল থানা পুলিশ।
বৃহস্পতিবার (৫ মে) দুপুরে তাকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। এরআগে লক্ষ্মীপুর পৌর শহরের সোনালী কলোনীর একটি বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।
অভিযুক্ত ইসমাইল হোসেন বাবু লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার দক্ষিণ চর মার্টিন গ্রামের মৃত আবু সাঈদ এর ছেলে। সামাজিক সংগঠন সবুজ বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক এবং জেলা সম্মিলিত স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের অন্যতম সদস্য।
ধর্ষণের ঘটনায় স্বেচ্ছাসেবী নেতা ইসমাইল হোসেন বাবুকে প্রধান আসামি করে লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন ভিকটিমের বাবা মো. আবুল কাশেম জব্বার।
লিখিত অভিযোগে জানা গেছে, শর্টফিল্মে অভিনয়ের সুযোগ দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ভিকটিম আরমানকে দীর্ঘদিন ধরে ধর্ষণ (বলৎকার) করে আসছে সবুজ বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন বাবু ও তার সহযোগিরা।
সর্বশেষ গত ৪ মে লক্ষ্মীপুর পৌর শহরের সোনালী কলোনীস্থ একটি ভাড়া বাসায় আরমানকে ধর্ষণ করা হয়। পরে ভিকটিমের পরিবার বিষয়টি জানতে পেরে থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে। ভিকটিমকে ধর্ষণের (বলৎকার) প্রাথমিক আলামত পেয়েছে পুলিশ।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ইসমাইল হোসেন বাবু সামাজিক সংগঠন সবুজ বাংলাদেশ এর নাম ভাঙিয়ে সরকারি বরাদ্দ এবং বিভিন্ন দান-অনুদান আত্মসাৎ করার পাশাপাশি নিজ সংগঠনের সদস্যদের ধর্ষণের (বলৎকার) মতো জঘন্য অপরাধে জড়িত রয়েছে। 
লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জসীম উদ্দীন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ইসমাইল হোসেন বাবু নামে এক স্বেচ্ছাসেবী নেতাকে ধর্ষণ (বলৎকার) মামলায় গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।