স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী ও মুজিববর্ষকে স্মরণীয় করে গিনিস বুকে নাম লেখাতে গাইবান্ধায় ১০ কি. মি.ব্যাপী সড়কে বিশ্বের দীর্ঘতম আলপনা অংকন 

স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী ও মুজিববর্ষকে স্মরণীয় করে গিনিস বুকে নাম লেখাতে গাইবান্ধায় ১০ কি. মি.ব্যাপী সড়কে বিশ্বের দীর্ঘতম আলপনা অংকন 
ছবিঃ সংগৃহীত

আবু তাহের। স্টাফ রিপোর্টার।। গাইবান্ধা।। ১৯ মার্চ, শুক্রবার।।  স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী ও মুজিববর্ষকে স্মরণীয় করে গিনিস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে নাম লেখাতে বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত একটানা ২৪ ঘন্টা গাইবান্ধা -সাঘাটা-ফুলছড়ি সড়কের ১০ কিলোমিটার জুড়ে পুলিশ লাইন হতে বাদিয়াখালী  পযর্ন্ত  ‘বিশ্বের দীর্ঘতম আলপনা উৎসব’ সম্পুর্ণ করা হয়েছে। 


 পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ও সরকারি মেডিকেল কলেজ পড়ুয়া গাইবান্ধার শিক্ষার্থী সংগঠন পাবলিক ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্টস্‌ অ্যাসোসিয়েশন অব গাইবান্ধা (পুসাগ) এর শিক্ষার্থী শিল্পীরা দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে আলপনা অংকন শুরু করেন।


 শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত গাইবান্ধা সদর উপজেলার বাদিয়াখালী পপর্যন্ত  এই ১০ কিলোমিটার সড়কে একটানা ২৪ ঘন্টায় আলপনা অংকন সম্পন্ন করেছে ।  


প্রসঙ্গতঃ উল্লেখ্য যে, ২৪ ঘন্টায় ১০ কিলোমিটার সড়কে আলপনা আঁকা সম্পন্ন করে গিনিস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে বিশ্বের দীর্ঘতম অংকিত সড়ক আলপনা হিসেবে স্বীকৃতি পেতে ওই সংগঠনের শিক্ষার্থী শিল্পীরা কাজটি সম্পন্ন করার উদ্যোগ নেয় । 

এ ব্যাপারে উদ্যোক্তা সংগঠনের সভাপতি হুসেইন মো. জীম, সাধারণ সম্পাদক একে প্রামানিক পার্থ, নির্বাহী সভাপতি ডা: তন্ময় নন্দী, প্রধান সমন্বয়ক চন্দ্র শেখর চৌহান জানান, স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়নত্মী এবং মুজিববর্ষকে সারা বিশ্বে স্মরণীয় করে রাখতেই দীর্ঘ ১০ কিলোমিটার সড়ক জুড়ে এই বর্ণিল নান্দনিক আলপনা অংকনের পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা হয়েছে। 

তারা আশাবাদী নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই আলপনা অংকন সম্পন্ন করায় গিনিস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে গাইবান্ধা জেলার নামটি সংযুক্ত করতে সক্ষম হবে।