সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান হৃদয়ে গাইবান্ধার সপ্তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালনঃ

সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান হৃদয়ে গাইবান্ধার সপ্তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালনঃ
ছবিঃ সংগৃহীত

আবু তাহের, স্টাফ রিপোর্টার।। ১৯ মার্চ, শুক্রবার।। গাইবান্ধা জেলার সচেতন কিছু সন্তানদের নিয়ে গঠিত একটি সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান হৃদয়ে গাইবান্ধা ২০১৪ ইং এর মার্চ মাসে আত্মপ্রকাশ করেছিল। প্রতিষ্ঠানটি একটি অরাজনৈতিক ও সামাজিক সেবামূলক প্রতিষ্ঠান হিসেবে আত্ম প্রকাশ করায় গাইবান্ধা জেলা সদরের কিছু লোকের সঙ্গে কথা হলে তারা হৃদয়ে গাইবান্ধা নামে একটি সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান যারা প্রতিষ্ঠা করেছেন তাদেরকে অনেক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেছেন এবং তারা এটিও বলেছেন, হৃদয়ে গাইবান্ধা যারা প্রতিষ্ঠা করেছেন তারা আমাদের গাইবান্ধার এ গর্বিত সন্তান এবং আমরাও গর্বিত যে,তারা এমন একটি প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করতে পেরেছে।

তারা এ কথাও বলেছেন, হৃদয়ে গাইবান্ধা প্রতি বছরের ন্যায় এবারের শীতেও শীতবস্ত্র বিতরণ করেছেন এবং বন্যার্তদের মাঝেও খাদ্য সামগ্রী প্রদান করেছেন। তারা সর্বদাই গরীব,অসহায় ও দুঃস্হদের বিভিন্ন সময় সাহায্য ও সহযোগিতা করে থাকেন। 

প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর এই দিনে হৃদয়ে গাইবান্ধার পরিচালনা পর্ষদের সকল সদস্যবৃন্দ ও উপদেষ্টামন্ডলীগনও উপস্হিত ছিলেন। উক্ত প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে উপস্হিত ছিলেন প্রধান উপদেষ্টা জনাব মোঃ কুতুব উদ্দিন,উপদেষ্টা জনাব মোঃ শহিদুল ইসলাম,জনাব মোঃ মোস্তাক আহম্মেদ ও উপস্হিত ছিলেন। 

এছাড়াও উপস্হিত ছিলেন অত্র প্রতিষ্ঠানের দপ্তর সম্পাদক জনাব মোঃ নাজমুল ইসলাম,ক্রীড়া সম্পাদক মোঃ কামরুজ্জামান মিয়া, যুগ্ম আইন বিষয়ক সম্পাদক মোঃ রওশন আলম, যুগ্ম তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মোঃ নিহাদ আহমেদ লিচু, যুগ্ম ত্রাণ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ মশিউর রহমান ও কার্যনির্বাহী পর্ষদের অন্যান্য সদস্যবৃন্দ ও উপদেষ্টাগনও উপস্হিত থেকে হৃদয়ে গাইবান্ধার প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী যথাযথ মর্যাদায় পালন করেন এবং তাদের আগামী দিনের পরিকল্পনার কথাও তুলে ধরেন। 

উপদেষ্টা শহিদুল ইসলাম বলেন, হৃদয়ে গাইবান্ধার মুল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হচ্ছে গরীব অসহায়,দুস্হ ও অবহেলিত মানুষের সেবা করা। আমরা মানুষের দুঃখ কষ্ট ভাগাভাগি করে নিতে চাই এবং আমরা গাইবান্ধাবাসীর নিকট হৃদয়ে গাইবান্ধার মত একটি সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের মাধ্যমে সমাজের অবহেলিত মানুষের সেবার মাধ্যমে  মাথা উচু করে বাঁচতে চাই।

তিনি আরো বলেন,গাইবান্ধা জেলা একটি অনুন্নত জেলা ও বিভিন্ন সময় বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ দেখা যায় তাই আমরা সবাই মিলে সেসব দুর্যোগ মোকাবেলায় এগিয়ে আসবো এবং কিছুটা হলেও তা মোকাবেলার চেস্টা করবো-ইনশাআল্লাহ।