সাম্প্রদায়িক সহিংসতা ও নির্যাতনের প্রতিবাদে গোবিন্দগঞ্জে বিক্ষোভ ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত

সাম্প্রদায়িক সহিংসতা ও নির্যাতনের প্রতিবাদে গোবিন্দগঞ্জে বিক্ষোভ ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত
ছবিঃ সংগৃহীত

আবু তাহের, গাইবান্ধা।।সারাদেশে হিন্দু সম্প্রদায়ের মন্দির ও প্রতিমা ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ, লুটতরাজ, ধর্ষণ ও হত্যার প্রতিবাদে গোবিন্দগঞ্জে হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ ও বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও অবস্থান ধর্মঘট করে সমাবেশ করা হয়েছে। 

শনিবার (২৩ অক্টোবর) দুপুর ১২টায় গোবিন্দগঞ্জে বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে হিন্দু সম্প্রদায়ের কয়েক হাজার নারী পুরুষের অংশ গ্রহণে বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়ে পৌর শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে উপজেলার শহীদ মিনার চত্বরে প্রতিবাদ সমাবেশ দুপুর ২টায় শুরু হয়। 

গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা পুজা উৎযাপন পরিষদের সভাপতি তনয় কুমার দপবের সভাপতিত্বে ও দিপক করের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বাংলাদেশে হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর অব্যহত অত্যাচার নির্যাতন বন্ধ, পূজামন্ডপে হামলা কারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানায় বক্তরা। সমাবেশে বক্তারা বলেন,আমরা বাঙালী। অসম্প্রদায়িক স্বপ্নে গড়া সোনার বাঙলায় সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীর ঠাঁই হতে পারেনা। অপরাধ সম্প্রদায়ের ভিত্তিতে হয়না। অপরাধী যেই হোক, দেশীয় আইনে বিচার হবে। কিন্তু বিভিন্ন সময়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে মিথ্যা রটনা ও উষ্কানী সৃষ্টি করে উগ্রসাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী নিজের কু-মতবাদ চরিতার্থ করেছে।এদের আইনের আওতায় এনে অতিদ্রুত বিচার দাবী করছি। 

এ সময় বক্তব্য রাখেন গাইবান্ধা জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সুর্য কুমার বকশি,মোবাইল ফোনে বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব প্রকৌশলী মনোয়ার হোসেন চৌধুরী,উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ,উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সস্পাদক সাবেক মেয়র আতাউর রহমান সরকার, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আব্দুল লতিফ প্রধান,উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ- সভাপতি ও গোবিন্দগঞ্জ পৌর মেয়র মুকিতুর রহমান রাফি, যুগ্ন- সাধারন সম্পাদক জাকারীয়া ইসলাম জুয়েল,উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ,র,ম শরিফুল ইসলাম জর্জ,পৌর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শরিফুল ইসলাম তাজু, 

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন,গোবিন্দগঞ্জ  উপজেলা পুজা উৎযাপন পরিষদের সভাপতি তনয় কুমার দেব, উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সাধারন সম্পাদক রিমন কুমার তালুকদার উপজেলা আওয়ামী লীগের যুব ক্রিয়া বিষয়ক সম্পাদক বাবু শৈলেন্দু মহন রায় স্বপনসহ ১৭টি ইউনিয়নের মন্দির কমিটির সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ হিন্দু সম্প্রদায়ের সাধারন জনগন উপস্থিত ছিলেন।