সিলেট অঞ্চলে ২৬ কোটি টাকার কৃষি যন্ত্র বরাদ্দ

সিলেট অঞ্চলে ২৬ কোটি টাকার কৃষি যন্ত্র বরাদ্দ
ছবিঃ সংগৃহীত

সিলেট অফিস।। ১২ এপ্রিল, সোমবার।। সিলেট অঞ্চলের কৃষকদের ধান কাটা সহজ করতে এবার ২৭১ টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার বা ধান কাটার মেশিন বরাদ্দ দিয়েছে কৃষি মন্ত্রণালয়। এছাড়াও, ধান কাটার ১৫০টি রিপার ও ৩৮ টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার দেয়া হয়েছে। শতকরা ৭০ ভাগ ভর্তুকিতে এসব যন্ত্র দিতে প্রায় ২৫ কোটি ৯২ লাখ টাকা ব্যয় হচ্ছে। 
কৃষি বিভাগ জানিয়েছে, সিলেট বিভাগের ৪ জেলায় ৬০৬ টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার এর চাহিদার বিপরীতে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ২৭১ টি। ৬৯১ টি রিপারের চাহিদার বিপরীতে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ১৫০ টি। ৩৮ টি রাইস ট্রান্সপ্লান্ট এর বিপরীতে ৩৮টি-ই বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।
জানা গেছে, একটি কম্বাইন্ড হারভেস্টার মেশিন দিয়ে প্রতি ঘণ্টায় অনায়াসে এক একর জমির ধান কিংবা গম কাটা যাবে । এক দিনে কাটা যাবে ৮ একর বা ২৬ কেদার জমির ধান বা গম। এতে ৬১ পার্সেন্ট খরচ কমবে , শ্রম বাঁচবে ৭০ পার্সেন্ট। উন্নত এই কৃষি যন্ত্র ধান কাটা, একই সাথে মাড়াই ও বস্তাবন্দির কাজও করবে। গত কয়েক বছর ধরেই হাওরগুলোতে এই কম্বাইন্ড হারভেস্টার দেখা যায়। সরকারি উদ্যোগের ফলে এবার প্রায় সকল হাওরেই এই কৃষি যন্ত্রের ব্যবহার করবেন কৃষকরা। কম্বাইন্ড হারভেস্টার এর দাম ৩২ থেকে ৩৫ লাখ টাকা। কৃষক ৩০ পার্সেন্ট টাকা সংশ্লিষ্ট কোম্পানীকে কিস্তিতে পরিশোধ করবেন। রিপার মেশিনের ক্ষেত্রেও একই নিয়ম। তবে এই মেশিনের দাম সর্বোচ্চ ২ লাখ ১০ হাজার টাকা থেকে আড়াই লাখ টাকা। এই মেশিন দিয়ে কেবল ধান কাটা যায়, অন্য কিছু করা যায় না। রাইস ট্রান্সপ্লান্ট এর দাম সর্বোচ্চ ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা থেকে ২ লাখ টাকা পর্যন্ত। এই মেশিন দিয়ে শুধু ধানের চারা রোপণ করা হয়।
কৃষি বিভাগ সূত্র জানায় , এবার সিলেট জেলার মধ্যে সিলেট সদর উপজেলায় ৭টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , ৫টি রিপার ও ২ টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার , দক্ষিণ সুরমা উপজেলায় ৫ টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , ৫টি রিপার ও ২টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার , গোয়াইনঘাট উপজেলায় ১০টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার ও ৫ টি রিপার , বালাগঞ্জ উপজেলায় ৫ টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , ২ টি রিপার ও ১ টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার , ওসমানীনগর উপজেলায় ২টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় ৫টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , ৫টি রিপার ও ১ টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার , বিশ্বনাথ উপজেলায় ১০ টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , ৫টি রিপার ও ২টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলায় ৫টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার, ৫টি রিপার ও ২টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার , গোলাপগঞ্জ উপজেলায় ৭টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , ৫টি রিপার ও ২টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার, জৈন্তাপুর উপজেলায় ৩টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার ১টি রিপার , কানাইঘাট উপজেলায় ৬টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , ৫টি রিপার ও ২টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার, জকিগঞ্জ উপজেলায় ৬টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , ৪টি রিপার ও ১টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার এবং বিয়ানীবাজার উপজেলায় ৫টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার ও ৩টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার বিতরণ করা হচ্ছে। সিলেট জেলায় সবমিলিয়ে ৭৬টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , ৪৭টি রিপার ও ১৮টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার বরাদ্দ দেওয়া হয়।
মৌলভীবাজার জেলার মৌলভীবাজার সদর উপজেলায় ৩টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার ও ৬টি রিপার , রাজনগর উপজেলায় ৪টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার ও ৫টি রিপার , শ্রীমঙ্গল উপজেলায় ৬টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার ও ৫ টি রিপার , কুলাউড়া উপজেলায় ৫টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার ও ৪টি রিপার , কমলগঞ্জ উপজেলায় ৫টি রিপার এবং জুড়ী উপজেলায় ২টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , ৩টি রিপার ও ১টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার দেয়া হচ্ছে। তবে, বড়লেখা উপজেলায় এই কৃষি যন্ত্রের কোন চাহিদা নেই। মৌলভীবাজার জেলায় মোট ২০টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , ২৫টি রিপার ও ১টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার বরাদ্দ দেয় কৃষি বিভাগ। সুনামগঞ্জ জেলার সুনামগঞ্জ সদর উপজেলায় ১০টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , ছাতক উপজেলায় ১০টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , ৫টি রিপার ও ২টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার , দোয়ারাবাজার উপজেলায় ৮টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার ও ২টি রিপার , বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় ৯ টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার ও ২টি রিপার , তাহিরপুর উপজেলায় ১০টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , ৫টি রিপার ও ৫টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার , ধর্মপাশা উপজেলায় ১০টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার ও ১টি রিপার , জামালগঞ্জ উপজেলায় ১০টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার ও ৫টি রিপার , দিরাই উপজেলায় ১০টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , ৫টি রিপার ও ১টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার , শাল্লা উপজেলায় ১০টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার ও ৫টি রিপার , জগন্নাথপুর উপজেলায় ১০টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার ও ৫টি রিপার এবং দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলায় ১০টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার দেয়া হচ্ছে। সুনামগঞ্জ জেলায় মোট বরাদ্দ ১০৭টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , ৩৮টি রিপার ও ৮টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার। হবিগঞ্জ জেলার হবিগঞ্জ সদর উপজেলায় ১০টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার ও ৫টি রিপার , মাধবপুর উপজেলায় ৬ টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার ও ৫ টি রিপার , চুনারুঘাট উপজেলায় ৫ টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , ৫ টি রিপার ও ২ টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার , বাহুবল উপজেলায় ৯ টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার ও ৫ টি রিপার , নবীগঞ্জ উপজেলায় ১০ টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , ৫টি রিপার ও ১টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার , লাখাই উপজেলায় ৮টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার ও ৫ টি রিপার , বানিয়াচং উপজেলায় ১০টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , ৫টি রিপার ও ৭টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার এবং আজমিরীগঞ্জ উপজেলায় ১০টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , ৫টি রিপার ও ১ টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার দেয়া হচ্ছে। হবিগঞ্জ জেলায় মোট ৬৮ টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার , ৪০ টি রিপার ও ১১ টি রাইস ট্রান্সপ্লান্টার বরাদ্দ দেয়া হয় । বরাদ্দকৃত কৃষি যন্ত্র বিতরণ প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে।
পর্যালোচনা করে দেখা যায়, সিলেট বিভাগের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ধান উৎপাদন হয় সুনামগঞ্জ ও হবিগঞ্জ জেলায়। অথচ চাহিদা অনুযায়ী এই দুই জেলায় কৃষি যন্ত্র কম বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।
কৃষি স¤প্রসারণ অধিদপ্তর(ডিএই) সিলেট বিভাগের অতিরিক্ত পরিচালক দিলীপ কুমার অধিকারী জানান, ভর্তূকির মাধ্যমে এসব কৃষি যন্ত্র এরই মধ্যে বিতরণ শুরু হয়েছে। যোগ্য কৃষক বাছাই করে এসব যন্ত্র দেয়া হচ্ছে। এর ফলে ধান কাটা অনেক সহজ হয়ে যাবে। শ্রমিক নির্ভর ধান কাটাও কমে যাবে। তিনি জানান , আধুনিক এই যন্ত্রের ব্যবহারে শ্রমিক খরচ কমবে। কৃষকরাও লাভবান হবেন। এজন্য ৭০ পার্সেন্ট ভর্তুকি দিয়ে সরকার কৃষি যন্ত্র কৃষকদের হাতে তুলে দিচ্ছে।