সিলেটে বিশ্ব সাদাছড়ি নিরাপত্তা দিবস পালন 

সিলেটে বিশ্ব সাদাছড়ি নিরাপত্তা দিবস পালন 
ছবিঃ সংগৃহীত
সিলেট অফিসঃ সিলেটে বিশ্ব সাদাছড়ি নিরাপত্তা দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে শনিবার দুপুরে সিলেট জেলা প্রশাসন, জেলা সমাজসেবা কার্যালয় এবং প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্রের উদ্দ্যোগে  জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভা ও স্মার্ট হোয়াইট ক্যান (সাদাছড়ি) বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। 
জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপপরিচালক নিবাস রঞ্জন দাস এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায়
প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সিলেটের জেলা প্রশাসক মো মজিবর রহমান বলেছেন, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের ব্যাপারে অসচেতনতা অনেক কমেছে। তবে সচেতনতা আরও বাড়াতে হবে। সরকারও নতুন নতুন উদ্যোগ গ্রহণ করছে।
 ‘দৃষ্টিজয়ে ব্যবহার করি-প্রযুক্তি নির্ভর সাদাছড়ি’ প্রতিপাদ্য বিষয় নিয়ে জেলা প্রশাসন আয়োজিত সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো আনোয়ার সাদাত, সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার গৌতম দেব, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শেখ মোহাম্মদ সেলিম, বিভাগীয় সমাজসেবা কার্যালয়ের উপপরিচালক আব্দুল রফিক, সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি আল আজাদ, সিলেট অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি মুহিত চৌধুরী ও প্রবীণ লেখক-সাংবাদিক আফতাব চৌধুরী। 
স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা প্রতিবন্ধী বিষয়ক কর্মকর্তা সিদ্ধার্থ শংকর রায়। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন, প্রতিবন্ধী ফাউন্ডেশনের সভাপতি আতাউর রহমান খান, গ্রিন ডিজএ্যাবল্ড ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক বায়েজিদ খান ও সুরমা অন্ধকল্যাণ সমিতির সভাপতি সালামত রাজা চৌধুরী। সঞ্চালনায় ছিলেন সামাজিক প্রতিবন্ধী মেয়েদের প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্রের সহকারী ব্যবস্থাপক মো লুৎফর রহমান। এছাড়াও বিভিন্ন সংগঠনের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
আলোচনাকালে প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক মো মজিবর রহমান বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের মর্যাদা ও অধিকার নিশ্চিত করেছিলেন।
তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবসময় প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের খোঁজখবর নেন। নানা সুযোগ তৈরি করে দিয়েছেন তাদের জন্যে। তারা যাতে অন্য সবার মতোই ভাল থাকেন সেজন্যে ভাতার ব্যবস্থা করেছেন। সরকার থেকে তাদেরকে চাকরির সুবিধাও করে দেওয়া হচ্ছে।
জেলা প্রশাসক জানান, নতুন সরকারি-বেসরকারি ভবন ও রাস্তায় প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সহজে উঠানামা ও নিরাপদ চলাচলের সুবিধা রাখা হচ্ছে।
জালালাবাদ অন্ধকল্যাণ সমিতির হাসপাতালে বিনামূল্যে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা চিকিৎসা নিতে পারবেন বলেও জেলা প্রশাসক নিশ্চিত করেন।