সৈয়দপুরে গৃহবধূকে ঘুমের ওষধ খাইয়ে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ

সৈয়দপুরে গৃহবধূকে ঘুমের ওষধ খাইয়ে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ
ছবি সংগৃহিত

স্টাফ রিপোর্টার। নীলফামারীর সৈয়দপুরে যৌতুকের জন্য সেলিনা আক্তার (১৯) নামে এক গৃহবধূকে ঘুমের ওষধ খাইয়ে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ উঠেছে শ্বশুর বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার ( জুলাই) দুপুরে শহরের নিচুকলোনী এলাকায় ঘটনা ঘটে। ওই গৃহবধূ বর্তমানে সৈয়দপর ১০০ শয্যা হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন।

নির্যাতিতা গৃহবধূর মা নাশিমা বলেন, তিন বছর আগে ওই এলাকার মৃত আবুল হোসেনের ছেলে ওসমান গনির সঙ্গে পারিবারিকভাবে সেলিনার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে তার শ্বশুর বাড়ির লোকজন যৌতুকের দাবি করে আসছে। ঘটনার দিন সেলিনার কাছে যৌতুক বাবদ লাখ টাকা এনে দিতে চাপ সৃষ্টি করা হয়।

কিন্তু এতে রাজি না হলে শাশুড়ি সুরাতন বেগম, ভাসুর আবু বক্কর সিদ্দিক, সুরাত আলী বাবু তার স্ত্রী রুমিনা বেগম তাকে বেধড়ক মারধর করে। পরে বাড়িতে আগে থেকে রাখা ঘুমের ওষধ খাইয়ে পরিকল্পিতভাবে হত্যার চেষ্টা করা হয়। প্রায় ঘন্টাখানেক পর প্রতিবেশীরা ঘটনাটি বুঝতে পেরে সেলিনাকে উদ্ধার করে ১০০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করেন।

তিনি আরও বলেন, বারবার জামাই তার শ্বশুর বাড়ির লোকজনের চাহিদা মেটানোর সামর্থ্য আমার নেই। তাই তারা সব সময় আমার মেয়েকে মারধর করতো। অনেক বুঝিয়ে লাভ হয়নি এবার হত্যা চেষ্টা করেছে। উপায় না পেয়ে এবার থানায় মামলার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

নির্যাতনকারী ওসমান গনির সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘আমার বউ সব সময় অসুস্থ থাকে। এমন একটা মানুষকে কতদিন আর সহ্য করা যায়।তবে যৌতুকের বিষয়টি অস্বীকার করেন তিনি।