সৈয়দপুরে চলন্ত ট্রেনে পাথরের আঘাতে সন্তানের চোখ নষ্ট’পিতার বিচার দাবি

সৈয়দপুরে চলন্ত ট্রেনে পাথরের আঘাতে সন্তানের চোখ নষ্ট’পিতার বিচার দাবি
ছবি সংগৃহীত

জাহিদুল হাসান জাহিদ।স্টাফ রিপোর্টার।। নীলফামারী সৈয়দপুরে চলন্ত ট্রেনে পাথর ছুড়ে মারায় এক শিশুর চোখ নষ্ট হয়েছে। শিশুটির নাম আজমির ইসলাম (৫)। রোববার(১৫আগস্ট) রাত সাড়ে ৭টায় সৈয়দপুর রেলস্টেশনের হোম সিগনালের কাছে এ ঘটনা ঘটে।

শিশুটির পিতা মারুফ বলেন, নীলফামারী স্টেশন থেকে সৈয়দপুরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা ট্রেনটিতে জানালার পাশে বসে ছিল আমার সন্তানটি।সন্ধ্যায় সৈয়দপুর স্টেশনে প্রবেশের সময় হোম সিগনালের কাছে আসলে আমার সন্তানটি হটাৎ কেঁদে উঠে। দেখি সে ডান চোখ চেপে ধরেছে এবং রক্ত ঝড়ছে। এ অবস্থায় সৈয়দপুর স্টেশনে নেমে রেলওয়ে পুলিশের এএসআই প্রভাষ কুমারের সহায়তায় দ্রুত সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে যাই।

হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্মকর্তা ডা: রবিউল ইসলাম দ্রুত শিশুটিকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানোর নির্দেশ দেন। পরে রংপুর মেডিক্যাল হাসপাতালের চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডা: রাশেদুল ইসলাম মাওলা তিনি উন্নতি চিকিৎসার জন্য ঢাকা পাঠিয়ে দেন।

বর্তমানে শিশু আজমির রাজধানীর ইসলামিয়া চক্ষু হাসপাতালের ১২৬ নং কেবিনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন। রাজধানীর চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডা: সোহেল তার পরীবারের লোকজনকে জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, তার ডান চোখ নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

শিশুটির পিতা কান্না জড়িত কন্ঠে আরো বলেন, আজমিরের আঘাত প্রাপ্ত ডান চোখটি ৮০ শতাংশ নষ্ট হয়ে গেছে বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। তিনি রেলের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তার বিচার দাবি করেছেন।

সৈয়দপুর রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রহমান বিশ্বাস জানান, এ ঘটনায় স্টেশন মাস্টার (গ্রড-৪) ময়নুল হোসেন বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে। ঘটনার সাথে জড়িত ব্যাক্তিকে খুঁজে বের করতে পুলিশ মাঠে কাজ করছে। পুলিশের মাধ্যমে এ ঘটনা তদন্তের পাশাপাশি গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ানোর হবে জানান।