সৈয়দপুরে দ্বিতীয় স্ত্রী অন্যত্রে চলে যাওয়ায় স্বামীর বিষপানে আত্মহত্যা

সৈয়দপুরে দ্বিতীয় স্ত্রী অন্যত্রে চলে যাওয়ায় স্বামীর বিষপানে আত্মহত্যা
ফাইল ফটো

স্টাফ রিপোর্টার।। নীলফামারীর সৈয়দপুরে আলম (৩০) নামে দুই সন্তানের জনক বিষ পানে আত্মহত্যা করে।

বুধবার(৭ সেপ্টেম্বর) দুপুর ২টায় সৈয়দপুর সবুজ সংঘ মাঠ সংলগ্ন এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসির সুত্রে জানা যায়,আলম পেশায় একজন ফার্নিচার মিস্ত্রী ।তার প্রথম স্ত্রীর নাম মনি।তাদের সংসারে দুইটি সন্তান রয়েছে। সংসার জীবন ভালোই চলছিল তাদের। যতো বিপত্তি প্রথম স্ত্রী মনির চাচাতো বোনকে নিয়ে। তার সঙ্গে আলমের প্রেম সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এ নিয়ে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে দেখা দেয় অশান্তি। স্বামী আলম চাচাতো বোনকে বিবাহ করার জন্য অশান্তি শুরু করে। কোন ভাবে চাচাতো বোন থেকে আলাদা করতে পারছিল না স্ত্রী মনি। এ নিয়ে সংসারে নেমে আসে অশান্তি। সংসারে যাহাতে অশান্তি না হয় সেই জন্য বাধ্য হয়ে স্বামীকে দ্বিতীয় বিবাহ করার অনুমতি দেয় প্রথম স্ত্রী। তখন আলম মেয়েটিকে বিবাহ করে।বিবাহ হওয়ার পর দ্বিতীয় স্ত্রী কয়েক বছর সংসার করেন আলমের সঙ্গে। পরে আলমকে অঙ্গত কারণে দ্বিতীয় স্ত্রী এক তরফা ভাবে তালাক দিয়ে অন্য একজনকে বিবাহ করে অন্যত্রে চলে যায়।দ্বিতীয় স্ত্রীকে ফিরেয়ে আনতে আলম অনেক চেষ্টা করে, এমন কি তার স্ত্রী মনিও অনেক চেষ্টা করে। কিন্তু দ্বিতীয় স্ত্রী আর আলমের জীবনে ফিরে না আশায় ঘটনার দিন আলম নিজ বাড়িতে বিষ পান করে। প্রথম স্ত্রী মনি এবং বাড়ির অন্যান্যরা দেখেন আলম খাটের উপর ছটফট করছে আর মূখ দিয়ে ফেনা বের হচ্ছে । তখন তারা আলমকে দ্রুত সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে আলমকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফাট করে।৮ সেপ্টেম্বর সকালে আলম রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু বরণ করে।ঐ দিন সন্ধ্যায় আলমকে হাতিখানা কবরস্থানে কবরস্থ করা হয়।

এই ব্যাপারে আলমের নানীর সঙ্গে কথা হলে সে কোন মন্তব্য করেনি।