৩৫ বছর সংসার ও তিন সন্তান রেখে স্বামীকে তালাক, দেবরকে বিয়ে, সাবেক স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন, স্বামী আটক

খোকন ঢাকার আব্দুল্লাহপুর এলাকায় কাঁচা মালের (সবজি) ব্যবসায়ী হিসেবে স্ত্রীকে নিয়ে ওই এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে থাকতেন। তাদের সংসারে ৩ সন্তানও রয়েছে। এ সুবাদে ভাইয়ের বাসায় আসা যাওয়া করতেন তার ছোট ভাই ফকির আলী শেখ। এতে করে দেবর ভাবির মধ্যে সখ্যতা গড়ে উঠে।

৩৫ বছর সংসার ও তিন সন্তান রেখে স্বামীকে তালাক, দেবরকে বিয়ে, সাবেক স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন, স্বামী আটক
ছবি: সংগৃহীত
এস এম আওলাদ হোসেন, সিনিয়র রিপোর্টার।।
লক্ষ্মীপুরে এক ভাড়া বাসায় স্ত্রী শহর বানুকে (৪৫) গলা কেটে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ ওঠেছে সাবেক স্বামী খোকন আলী শেখের বিরুদ্ধে।
রোববার (১৭ এপ্রিল) বেলা ১১টার দিকে পুলিশ ঘাতক স্বামীকে আটক করে । এরপর দুপুরে জেলা স্টেডিয়ামে পূর্বে পাশে সিরাজ মিয়ার বাসা থেকে গৃহবধূর রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করা হয়।
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পুলিশ সুপার ডক্টর এ এইচ এম কামরুজ্জামান। আটক ব্যক্তি বগুড়া জেলার শারিয়াকান্দি উপজেলার চর জলিক গ্রামের মেহের আলীর ছেলে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী জানায়, প্রায় ৩৫ বছর আগে বগুড়ার বাসিন্দা মেহের আলীর ছেলে খোকন শেখ ও পঞ্চগড় জেলার দেবীগঞ্জ গ্রামের বাসিন্দা ফজর আলীর মেয়ে শহরবানুর বিয়ে হয়। খোকন ঢাকার আব্দুল্লাহপুর এলাকায় কাঁচা মালের (সবজি) ব্যবসায়ী হিসেবে স্ত্রীকে নিয়ে ওই এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে থাকতেন। তাদের সংসারে ৩ সন্তানও রয়েছে। এ সুবাদে ভাইয়ের বাসায় আসা যাওয়া করতেন তার ছোট ভাই ফকির আলী শেখ। এতে করে দেবর ভাবির মধ্যে সখ্যতা গড়ে উঠে।

এক পর্যায়ে তারা দু’জন পালিয়ে এসে লক্ষ্মীপুর শহরের সিরাজ মোল্লার বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন। সাবেক স্বামীকে ডিভোর্স দিয়ে নতুন সংসার শুরু করেন শহরবানু। এমন প্রেক্ষাপটে তার সাবেক স্বামী খোঁজ নিয়ে লক্ষ্মীপুরে আসেন। এক পর্যায়ে ছোট ভাইয়ের কর্মে যাওয়ার ফাঁকে বাসায় ঢুকে শহর বানুকে ফিরিয়ে নেয়ার প্রস্তাব দেন খোকন। এতে রাজি না হওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে শহরবানুকে জবাই করে হত্যা করে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে খোকন। এ সময় স্থানীয় এলাকাবাসী তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন পুলিশ সুপার।

পুলিশ সুপার ড. এ এইচ এম কামরুজ্জামান গণমাধ্যমকে জানান, ভাবিকে বাগিয়ে এনে দেবর বিয়ে করে নতুন সংসার শুরু করে। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে সাবেক
স্বামী তার স্ত্রীকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে। পুলিশ হত্যাকারীকে আটক করেছে। নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।