অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে ভারতীয় নাগরিক নীলফামারীতে গ্রেফতার

অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে ভারতীয় নাগরিক নীলফামারীতে গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার।। জাতীয় জরুরী সেবা ৯৯৯ এর সংবাদের প্রেক্ষিতে অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে জেলা সদরের আঙ্গারপাড়া গ্রাম থেকে একজন ভারতীয় নাগরিককে গ্রেফতার করেছে নীলফামারী থানা পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত হলেন, ভারতের জলপাইগুড়ি জেলার মাল বাজার থানার নেতাজি কলোনী এলাকার অভিজিৎ দাস এর মেয়ে মিতালী দাস।

থানা সূত্রে জানা যায়, আহ (২৮এপ্রিল, ২১) জাতীয় জরুরী সেবা ৯৯৯ এর মাধ্যমে নীলফামারী থানাধীন আঙ্গারপাড়া নামক স্থানে জনৈক সাধন রায় (ছদ্মনাম) এর বসতবাড়িতে একজন ভারতীয় নাগরিক আটক অবস্থায় রয়েছে মর্মে জানতে পেরে একটি মোবাইল টিম জরুরী ভিত্তিতে উক্ত স্থানে উপস্থিত হয়। এ সময় আটক ভারতীয় নাগরিক মিতালী দাস এর সাথে নীলফামারী থানাধী বাংলাদেশী নাগরিক লিপি রানী (ছদ্মনাম), এর ফেসবুকের মাধ্যমে বন্ধুত্বের সম্পর্ক তৈরী হয়। এরই ধারাবাহিকতায় গত ০৬ মার্চ ২০২১ তারিখ মিতালী দিনাজপুর জেলার হিলি সীমান্ত দিয়ে পাসপোর্ট ভিসা ছাড়াই কৌশলে বাংলাদেশে প্রবেশ করে  ঢাকাস্থ হেমায়েতপুরের তার চাচা জনৈক রবীন্দ্র দাস (৪৫) ও গোবিন্দ দাস (৪২) এর বাড়ী হয়ে ঠাকুরগাঁও জেলার রাণীশংকৈল থানাধীন শীবদীঘি নামক এলাকার তার বান্ধবীর সাথে দেখা করে সেখানে কিছু দিন অবস্থান করে। পরবর্তীতে তার অপর ফেসবুক বন্ধুর সাথে দেখা করার জন্য নীলফামারী থানা এলাকায় আসলে, পুলিশ তাকে পাসপোর্ট ও ভিসা ছাড়াই বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করার অপরাধে গ্রেফতার করে।

এ বিষয়ে নীলফামারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রউপ বলেন, “পাসপোর্ট ও ভিসা ছাড়া ভারত থেকে অবৈধ ভাবে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করায় “দি কন্ট্রোল অব এন্ট্রি এ্যাক্ট” এর ৪ ধারার  অপরাধে উক্ত ভারতীয় নাগরিক মিতালী দাসের বিরুদ্ধে নীলফামারী থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে”। তিনি আরো বলেন গ্র্রেফতারকৃতকে বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাকারে প্রেরণ করা হয়েছে”।