ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের শ্রদ্ধা নিবেদন 

তারা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি এবং মুজিবনগর স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন।

ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের শ্রদ্ধা নিবেদন 
ছবি: সংগৃহীত
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়। ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি এবং মুজিবনগর স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের। 
(শনিবার) সকাল আটটায় ধানমন্ডি-৩২ নম্বরে মিলিত হন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণসহ বিভিন্ন ইউনিটের নেতৃবৃন্দ। পরে তারা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি এবং মুজিবনগর স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন।
এ সময় বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়, সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যসহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি ইব্রাহীম ফরাজীর নেতৃত্বে দুই - শতাধিক নেতাকর্মী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি
সঞ্জিত চন্দ্র দাস, সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন,  ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক জোবায়ের, ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক সাইদুর রহমান হৃদয়সহ বিভিন্ন ইউনিটের ৫ শতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, মুক্তিযুদ্ধের কিছুদিনের মধ্যেই ১৯৭১ সালের ১০ই এপ্রিল গঠিত হয় বাংলাদেশের প্রথম প্রবাসী সরকার, যা মুজিবনগর সরকার নামে পরিচিত। ১৭ই এপ্রিল মেহেরপুর জেলার বৈদ্যনাথতলা (বর্তমান উপজেলা মুজিবনগর) গ্রামের আমবাগানে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম সরকার শপথ গ্রহণ করেছিলো। শেখ মুজিবুর রহমান এই সরকারের রাষ্ট্রপতি নিযুক্ত হন। কিন্তু তিনি তখন পাকিস্তানে কারাগারে বন্দী। তাঁর অনুপস্থিতিতে উপ-রাষ্ট্রপতি, সৈয়দ নজরুল ইসলাম অস্থায়ী রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব পালন করেন। তাজউদ্দীন আহমদ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনা এবং দেশে ও বিদেশে এই যুদ্ধের পক্ষে জনমত গড়ে তোলা ও সমর্থন আদায় করার ক্ষেত্রে এই সরকার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এই সরকার গঠনের পর থেকে অগণিত মানুষ দেশকে মুক্ত করার জন্য সশস্ত্র সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়ে।