গাইবান্ধার নবনির্বাচিত ইউপি সদস্যের ঘাতক আরিফ অবশেষে র‍্যাবের হাতে গ্রেফতার

গাইবান্ধার নবনির্বাচিত ইউপি সদস্যের ঘাতক আরিফ অবশেষে র‍্যাবের হাতে গ্রেফতার
ছবিঃ সংগৃহীত

আবু তাহের।। স্টাফ রিপোর্টার।। গাইবান্ধা সদর উপজেলার লক্ষীপুর ইউনিয়নের নবনির্বাচিত এক ইউপি সদস্যকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার প্রধান আসামি ঘাতক আরিফ মিয়াকে অবশেষে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব-১৩ এর একটি টিম।

অভিযুক্ত আরিফ মিয়া গাইবান্ধা সদর উপজেলার লক্ষীপুর ইউনিয়নের মাগুরের কুটি গ্রামের হায়দার আলীর ছেলে। গ্রেফতারের বিষয়টি সাংবাদিকদের ১৪ নভেম্বর রবিবার সকালে নিশ্চিত করেন র‌্যাব-১৩, গাইবান্ধা ক্যাম্পের ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট, সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মাহমুদ বশির আহমেদ।

মাহমুদ বশির আহমেদ সাংবাদিকদের আরো জানান, ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত আরিফ মিয়া পলাতক ছিল। গেল রাতে তাকে পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার একটি গ্রাম থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ১২ নভেম্বর শুক্রবার রাত সাড়ে ১১ টার দিকে নবনির্বাচিত ইউপি সদস্য রউফ তার প্রতিবেশী রুহুল আমিনের সঙ্গে মোটরসাইকেল যোগে লক্ষ্মীপুর বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। বাড়ির কাছাকাছি একটি ভাঙা ব্রিজ হেঁটে পার হচ্ছিলেন তারা। এ সময় একই গ্রামের যুবক আরিফ মিয়া লোহার রড দিয়ে তার ওপর অতর্কিত হামলা চালান। রউফের মাথায় কয়েকটি আঘাত করে পালিয়ে যান আরিফ। পরে রউফকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় শনিবার রাতে নিহতের বড় বোন মমতাজ বেগম বাদী হয়ে সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় আরিফ মিয়াকে প্রধান ও অজ্ঞাত ৬-৭ জনকে আসামি করা হয়।