ঘুমের ঔষধ খাইয়ে ১৩ বছরের কিশোরী ধর্ষণ, সৎ বাবা আটক

ঘুমের ঔষধ খাইয়ে ১৩ বছরের কিশোরী ধর্ষণ, সৎ বাবা আটক
ছবি: সংগৃহীত

স এম আওলাদ হোসেন,সিনিয়র রিপোর্টার।।লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে জুসের সঙ্গে ঘুমের ওষধ খাইয়ে ১৩ বছরের কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় সৎ বাবা মো. মিলাদকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১২ মে) বিকেলে কমলনগর থানা পুলিশ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এরআগে সকালে তোরাবগঞ্জ ইউনিয়নের চরপাগলা এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। কিশোরীর ভাইয়ের দায়ের করা মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানা যায়, ৩ বছর আগে কিশোরীর মায়ের (স্বামী পরিত্যক্তা) সঙ্গে সোনাইমুড়ি এলাকার নুরুল হকের ছেলে মিলাদের বিয়ে হয়। এরপর থেকে মিলাদ ঘর জামাই হিসেবে শ্বশুর বাড়িতে বসবাস করে আসছে। দীর্ঘদিন থেকে কিশোরীর ওপর খারাপ নজর পড়ে। 

বুধবার (১১মে) সকালে কিশোরীর মা মেয়েকে ঘরে রেখে বোনের বাড়িতে বেড়াতে যায়। রাতে সৎ বাবা জুসের সঙ্গে তাকে ঘুমের ওষধ খাইয়ে দেয়। পরে অচেতন হয়ে পড়লে তিনি রাতভর তাকে ধর্ষণ করে। এসময় ধর্ষণের চিত্র মোবাইলফোনে ধারণ করে। পরে সকালে কিশোরীর মামি ডাকাডাকি করলে মেয়ে বিবস্ত্র অবস্থায় দরজা খুলে দেয়। এ অবস্থা দেখে মামি স্থানীয় গণ্যমান্যদের জানালে তারা পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে মিলাদকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

কিশোরীর খালা বলেন, অনেকক্ষণ ডাকাডাকির পর আমার ভাগ্নি দরজা খোলে। কিন্তু সে বিবস্ত্র অবস্থায় ছিল। জিজ্ঞেস করতেই সে বলে সৎ বাবা তার সর্বনাশ করেছে। এরআগেও আমার বড় ভাগ্নিকেও মিলাদ যৌন হয়রানি করেছে। কিন্তু মিলাদের নির্যাতনের ভয়ে আমার বোন তা প্রকাশ করেনি।

কমলনগর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সোলাইমান বলেন, ভূক্তভোগীকে উদ্ধার করে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তার ভাইয়ের মামলায় অভিযুক্তকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।