জবির কেন্দ্রীয় লাইব্রেরী হতে তুলে দেওয়া হয়েছে সকল বিধিনিষেধ

জবির কেন্দ্রীয় লাইব্রেরী হতে তুলে দেওয়া হয়েছে সকল বিধিনিষেধ
ছবি: সংগৃহীত

তানভীর আহমেদ,  জবি প্রতিনিধি।।জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরী থেকে সকল ধরনের বিধিনিষেধ তুলে দেয়া হয়েছে । লাইব্রেরী কার্ড থাকলেই যে কোন বই নিয়ে পড়াশোনা করতে পারবেন শিক্ষার্থীরা । 

গত রবিবার (৭আগস্ট) জবির  কেন্দ্রীয় লাইব্রেরীতে বাইরের বই পড়া নিয়ে  যে বিধি-নিষেধ ছিল তা তুলে নেয়া হয়েছে এবং বাইরের বই  পড়া  ও   সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় লাইব্রেরী খোলা থাকার  বিষয়টি উদ্বোধন করেছেন  জবির ছাত্রকল্যাণের পরিচালক অধ্যাপক ড.মো.আইনুল ইসলাম ।

জবির নতুন একাডেমিক ভবনের ষষ্ঠ তলায় রয়েছে কেন্দ্রীয় লাইব্রেরী । আগে জবির কেন্দ্রীয় লাইব্রেরীতে বাইরের বই পড়া নিয়ে বিধি-নিষেধ ছিল কিন্তু এখন শিক্ষার্থীদের কল্যাণে এ নিয়ম থেকে বেরিয়ে আসছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ।

সংস্কারের নামে জবির  উন্মুক্ত লাইব্রেরী বন্ধ করে দেয়া হলে শিক্ষার্থীরা এ নিয়ে প্রতিবাদ জানাই । জবির উন্মুক্ত লাইব্রেরী দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর এটি খুলে দেয়ার জন্য আন্দোলন করে সাধারণ শিক্ষার্থীরা তারই ধারাবাহিকতায় শিক্ষার্থীদের পড়ার সুযোগ করে দিতে উন্মুক্ত লাইব্রেরী খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয় এবং পাশাপাশি জবির কেন্দ্রীয় লাইব্রেরী সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয় । যেসব শিক্ষার্থীদের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির কার্ড আছে শুধু তারাই এখানে প্রবেশ করতে পারবেন এবং বাইরে থেকে বই এনেও এখানে শিক্ষার্থীরা পড়তে পারবেন ।

 উন্মুক্ত লাইব্রেরী খোলার জন্য আন্দোলন হলে কেন্দ্রীয় লাইব্রেরীতে বাইরের বই নিয়েও পড়ার অনুমতি ও কেন্দ্রীয় লাইব্রেরী খুলে দেয়ার জন্য সিদ্ধান্ত নেন জবি ট্রেজারার অধ্যাপক ড.কামাল উদ্দীন আহমদ ।

উল্লেখ্য, এ বিষয়ে জবির ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড.মো.আইনুল ইসলাম বলেন,আজ থেকেই আমরা এ বিষয়টি চালু করেছি তাতে করে শিক্ষার্থীরা বাইরে থেকে বই এনেও পড়তে পারে ।

এ বিষয়ে গ্রন্থাগারিক,জনাব মোঃ এনামুল হক বলেন,সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় লাইব্রেরী খোলা থাকবে । যেসব শিক্ষার্থীদের লাইব্রেরী কার্ড আছে তারাই এখানে পড়তে পারবে এবং এখানে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা পড়ার সুযোগ পাবে না ।