জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আকস্মিক ইউক্রেন সফর

জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আকস্মিক ইউক্রেন সফর
ছবিঃ সংগৃহীত

 জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী আনালেনা বেয়ারবক আকস্মিক সফরে শনিবার কিয়েভ পৌঁছেন। তিনি বলেন, রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে ইউক্রেনের প্রতি বার্লিনের সমর্থন অটুট থাকবে।
এটি ইউক্রেনে তার দ্বিতীয় সফর এবং ইউক্রেনের প্রধানমন্ত্রী ডেনিস শ্যামিগালের বার্লিন সফরের এক সপ্তাহ পরে তিনি এই সফরে আসেন। তিনি কিয়েভকে অস্ত্র সরবরাহের কথা পূর্ণব্যক্ত করেন।
বেয়ারবক এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘আমি আজ কিয়েভ ভ্রমণ করেছি এই কারণে যে, তারা আমাদের উপর নির্ভর করতে পারে। আমরা অস্ত্র সরবরাহ এবং মানবিক ও আর্থিক সহায়তার সাথে যতদিন প্রয়োজন ততদিন ইউক্রেনের পাশে থাকবো।
৫শ’ মিলিয়ন ইউরোর বেশি মূল্যের আরও সামরিক সহায়তা প্যাকেজে অ্যান্টি-এয়ারক্রাফট সিস্টেম, পিক-আপে বসানো রকেট লঞ্চার এবং অ্যান্টি-ড্রোন সরঞ্জামের মতো ভারী অস্ত্রও রয়েছে।
এই সপ্তাহের শুরুর দিকে, বার্লিন বলেছিল যে তারা নেদারল্যান্ডের সাথে ইউক্রেনীয় সৈন্যদের অশৌচ মুক্ত করার প্রশিক্ষণ দেবে।
বেয়ারবক বলেন, এটা স্পষ্ট যে পুতিন ইউক্রেনের দুর্ভোগের প্রতি সহানুভূতি জানাতে ক্লান্ত হয়ে আমাদের ওপর ভরসা করছেন।
‘তিনি মনে করেন যে তিনি আমাদের সমাজকে মিথ্যা দিয়ে বিভক্ত করতে পারবেন এবং শক্তি সরবরাহের মাধ্যমে আমাদের ব্ল্যাকমেইল করতে পারেন।
তিনি বলেন, ‘পুতিনের এই হিসাব অবশ্যই কাজে আসবে না এবং হবেও না। কারণ সমগ্র ইউরোপ জানে যে, ইউক্রেন আমাদের শান্তি রক্ষা করছে।
বেয়ারবক জার্মান সরকারের প্রথম জ্যেষ্ঠ প্রতিনিধি যিনি মে মাসে কিয়েভ সফর করেছিলেন। তখন তিনি কিয়েভে জার্মানির দূতাবাস পুনরায় খোলার ঘোষণা করেছিলেন।