ঠাকুরগাঁওয়ে আশ্রয়ণ প্রকল্পে ভাঙচুর, থানায় মামলা

ঠাকুরগাঁওয়ে আশ্রয়ণ প্রকল্পে ভাঙচুর, থানায় মামলা
ছবি: সংগৃহীত

বিকাশ রায় চৌধুরী, স্টাফ রিপোর্টার।। ঠাকুরগাঁও পীরগঞ্জ উপজেলায় হত দরিদ্র ভূমিহীনদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঈদ উপহারের ঘর অবৈধভাবে দখল ও ভাংচুরের অভিযোগে ৫০ জনের নামে থানায় মামলায় করেছেন পীরগঞ্জ ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা আবু রায়হান ।

গত বৃহস্পতিবার (৫ই মে)  বাদি হয়ে ঠাকুরগাঁও পীরগঞ্জ থানায়  মামলা দায়ের করেন তিনি।

মামলার সূত্রে জানা যায়, ওই উপজেলার পীরগঞ্জ পৌরসভার গুয়াগাঁও আশ্রয়ন প্রকল্প (দুই) এর আওতায় ৩২টি ঘর নির্মাণ করা হয়। পৌর কাউন্সিলর আব্দুস সামাদ, মমতাজ আলী, উসমান আলীর নির্দেশে প্রায় ২৫ জন ভূমিহীন অবৈধ ভাবে আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর দখলে নেয়। এই খবর পাওয়ার পরে প্রশাসনের লোক সেখানে গেলে তারা উত্তেজিত হয়ে আশ্রয়ন প্রকল্পে ভাংচুর চালায়। পর পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন এবং ঘর গুলো দখলমুক্ত করা হয়। এ ঘটনায় ওই দিন রাতেই ৫০ জনকে আসামী করে পীরগঞ্জ থানায় একটি  মামলা করা হয়।ভূমিহীনরা অভিযোগ করে বলেন, পৌর কাউন্সিলর আব্দুস সামাদ অনেককে ঘর দেওয়ার নামে প্রচুর টাকা লেনদেন করেছে। সেজন্য তিনি আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘরে অন্য ভূমিহীনদের দখল দিয়ে দিচ্ছেন। এজন্য ঘর পাওয়া প্রকৃত ভূমিহীনরা ঘর পাওয়া নিয়ে শংঙ্কায় রয়েছে।

পৌর কাউন্সিলর আব্দুস সামাদ বলেন, ঘর ভাঙচুর ও দখলের খবর পেয়ে আমরা সেখানে গিয়ে ঘর 

দখলমুক্ত করি কিন্তু ভুল বুঝাবুঝির কারণে আমাদের নামে মামলা হয়।পীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেজাউল করিম জানান,আশ্রয়ন প্রকল্প-২ এর আওতায় ঘর বরাদ্ধের বিষয়ে লেনদেনের অভিযোগ পেয়েছি। সেই সাথে ঘরভা ঙচুর ও অবৈধভাবে প্রবেশ এর চেষ্টায় মামলা করা হয়েছে। আর আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর নিয়ে কোন প্রকার দুর্নীতি  প্রশ্রয় দেওয়া হবে না।