ঠাকুরগাঁওয়ে নতুন ৩৯ জনসহ মােট আক্রান্ত ১ হাজার ৮৫১ জন, মৃত্যু-৪৩ জনের

ঠাকুরগাঁওয়ে নতুন ৩৯ জনসহ মােট আক্রান্ত ১ হাজার ৮৫১ জন, মৃত্যু-৪৩ জনের
ছবিঃ সংগৃহীত

বিকাশ রায় চৌধুরী,ঠাকুরগাঁও।। ১০ জুন, বৃহস্পতিবার।। ঠাকুরগাঁওয়ে বর্তমানে করােনা পরিস্থিতি দিন দিন খারাপ হচ্ছে। প্রতিদিনই বিপুল সংখ্যক মানুষ নতুন করে আক্রান্ত হচ্ছেন। এছাড়াও মৃত্যুর হারও বাড়ছে। বিধি নিষেধ থাকলেও রাস্তাঘাট, হাট-বাজার ও অন্যান্যস্থানে প্রচুর জনসমাগম হচ্ছে। এতে করে সংক্রমনের ঝুঁকি বাড়ছে। 

ঠাকুরগাঁও সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা যায়, 

বৃহস্পতিবার(১০ জুন) পর্যন্ত ২৪ ঘন্টায় ৩৯ জন করােনায় আক্রান্ত হয়েছেন। 
এ পর্যন্ত মােট ১ হাজার ৮৫১ জন আক্রান্ত। এর মধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় ৪ জনসহ জেলায় মােট আরােগ্য লাভ করেছেন ১ হাজার ৫৮৯ জন। এদের মধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় ২ জন ব্যক্তি মৃত্যুবরণ করেন। এ পর্যন্ত জেলায় মােট ৪৩ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। গত ২৪ ঘন্টায় হােম কােয়ারন্টাইনে রয়েছেন ১১৪ জন। অদ্যাবধি মােট হােম কােয়ারন্টাইনে ছিলেন ৫ হাজার ৩শ জন। গত ২৪ ঘটায় হােম কােয়ারন্টাইন থেকে ছাড়া পেয়েছেন ১১৩ জন এবং অদ্যাবধি মােট ৫ হাজার ২১৫ জন ছাড়পত্র পেয়েছেন। অদ্যাবধি প্রাতিষ্ঠানিক কােয়ারন্টাইনে ছিলেন ৩৫১ জন। ২৪ ঘটায় আইসােলসনে ছিলেন ৩৯ জন, অদ্যবাধি মােট ১ হাজার ৮৫১ জন আইসােলেশনে ছিলেন। 

ঠাকুরগাঁও সিভিল সার্জন ডা: মাহফুজার রহমান সরকার জানান, জেলায় করােনা পরিস্থিতি একটু খারাপের দিকে। বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার দুওসুও, পাড়িয়া, বড় পলাশবাড়ী ইউনিয়ন, পৌর শহরের হাজীপাড়া, কালিবাড়ী এলাকাকে ঝুঁকিপূর্ন এলাকা হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। পৌর মেয়র আঞ্জুমান আরা বেগম বন্যা স্বপরিবারে করােনায় আক্রান্ত হয়েছেন। যে সকল বাড়িতে করােনা আক্রান্ত রােগী পাওয়া যাচ্ছে তাদের বাড়িতে লাল পতাকা টাঙ্গানাে হচ্ছে। করােনা মােকাবেলায় সকলের সতর্কতামূলক সহযােগিতা কামনা করেন তিনি।