ডোপ টেস্টের মাধ্যমে শাবিপ্রবিতে ভর্তি ৮ দিনে ২৩৭৮৩ জন শিক্ষার্থীর আবেদন 

 ডোপ টেস্টের মাধ্যমে শাবিপ্রবিতে ভর্তি ৮ দিনে ২৩৭৮৩ জন শিক্ষার্থীর আবেদন 
ছবিঃ সংগৃহীত
সিলেট অফিস ।।গত বছরের ন্যায় এবারও শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ডোপ টেস্টের মাধ্যমে স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষ প্রথম সেমিস্টারে ভর্তিচ্ছুদের ভর্তি করানো হবে।
মঙ্গলবার বিকালে এ তথ্য জানিয়েছেন ভর্তি কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ড. রাশেদ তালুকদার।
গত ১৭ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া আবেদন চলবে আগামী ২৭ অক্টোবর রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত। তবে ২৮ অক্টোবর রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত ফি পরিশোধ করা যাবে। বিশেষ যোগ্যতায়ও ভর্তির সুযোগ রেখেছে কর্তৃপক্ষ।
বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণরা আবেদনের পর ভর্তির জন্য যোগ্যদের তালিকা বা র‌্যাংকিং প্রকাশ করা হবে। এরপর র‌্যাংকিং অনুসারে মোবাইল ফোনে মেসেজে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির দিন তারিখ জানানো হবে। সেই তালিকা ওবেসাইটে যথাসময়ে প্রকাশ করা হবে।
পরবর্তীতে ভর্তির দিন বিশ্ববিদ্যালয়ে আসতে হবে শিক্ষার্থীদের। এ সময় তাদের ডোপ টেস্ট করা হবে।
গুচ্ছ পরীক্ষা ছাড়াও বিশেষ যোগ্যতায় শিক্ষার্থী ভর্তির বিষয়ে অধ্যাপক ড. রাশেদ তালুকদার বলেন, ‘আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াড, আন্তর্জাতিক পদার্থবিজ্ঞান অলিম্পিয়াড আন্তর্জাতিক ইনফরমেটিক্স অলিম্পিয়াড, এবং অন্যান্য স্বীকৃত আন্তর্জাতিক অলিম্পিয়াডে স্বর্ণ, রৌপ্য অথবা ব্রোঞ্জ পদকপ্রাপ্তদের এ সুযোগ দেয়া হবে।
গত ১৭ অক্টোবর সাধারণ ও প্রযুক্তি গুচ্ছের অধীনে ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবিপ্রবি)। বিজ্ঞপ্তির প্রকাশের পর প্রথম ৮ দিনে আবেদন করেছে মোট ২৩৭৮৩ জন শিক্ষার্থী।
বিশ্ববিদ্যালয়টির ভর্তি কমিটির টেকনিক্যাল কো-অর্ডিনেটর ও কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক মো. মাসুম গণমাধ্যমে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
অধ্যাপক মো. মাসুম বলেন, এখন পর্যন্ত মোট ২৩৭৮৩ টি আবেদন পড়লেও এদের মধ্যে ১৯৩৬৫ জন আবেদন ফি পরিশোধ করেছেন। এছাড়া বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ‘এ’, ‘বি’ ও ‘সি’ ইউনিটে মোট ১৪৫৭১ টি, মানবিক বিভাগ থেকে ‘বি’ ও ‘সি’ ইউনিটে মোট ৩২৮১ টি এবং ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ থেকে মোট ১৫১০ জন আবেদন করেছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।
গত ১৭ অক্টোবর প্রকাশিত ভর্তি বিজ্ঞপ্তিতে বিজ্ঞান বিভাগের ভর্তিচ্ছুদের জন্য তিনটি ইউনিটে আবেদন ফি ৫০০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে আর্কিটেকচার বিভাগে ভর্তিচ্ছু শিক্ষাদের আবেদন ফি ৩০০ টাকা বাড়িয়ে মোট ৮০০ টাকা ধার্য করা হয়েছে।
এছাড়া বিজ্ঞপ্তিতে বিজ্ঞান বিভাগের বরাদ্দকৃত ‘এ’ ইউনিটের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার্থীরা শাবিপ্রবির ‘এ’, ‘বি’ এবং ‘সি’ ইউনিটে, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের পরীক্ষার্থীরা ‘বি’ এবং ‘সি’ ইউনিটে ভর্তির আবেদন করতে পারবে বলে উল্লেখ করা হয়।
মানবিকের ইউনিট ‘বি’ তে ২৯ টি ও ব্যবসায় শিক্ষার ‘সি’ ইউনিটে ৫ টি এবং বিজ্ঞানের ‘এ’ ইউনিটে ৬৬ টি কোটা রয়েছে। তিন ইউনিট মিলিয়ে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান (২৮ জন), ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী/জাতিসত্ত্বা/হরিজন-দলিত (২৮ জন), প্রতিবন্ধী (১৪ জন), চা শ্রমিক (০৪ জন), পোষ্য (২০ জন) এবং বিকেএসপি কোটায় (০৬ জন) মোট ১০০টি আসন সংরক্ষিত রয়েছে। তবে কোন কোটায় কতটি আবেদন পড়েছে তা জানা যায়নি।