পঞ্চগড়ে দৃশ্যমান কাঞ্চনজঙ্ঘা, দেখতে দর্শনার্থীদের ভীড়

পঞ্চগড়ে দৃশ্যমান কাঞ্চনজঙ্ঘা, দেখতে দর্শনার্থীদের ভীড়
ছবি: সংগৃহীত

কামরুজ্জামান টুটুল।। পঞ্চগড়।।অবশেষে সূর্যের আলোক ছটায় মায়াবী রূপ নিয়ে দেখা দিয়েছে কাঞ্চনজঙ্ঘা। ভৌগোলিক বৈশিষ্ট্যের কারণে ঋতুরাজ হেমন্তকে পাশকাটিয়ে অক্টোবরের শেষে নেমে আসবে শীত। ঘনকুয়াশা আর হিমেল হাওয়া নিয়ে মার্চ মাস পর্যন্ত চলে শীতের দাপট। ঠিক এ সময়ে প্রতিবেশি দেশ নেপালের মায়াবী কাঞ্চনজঙ্ঘা পর্বত চায়ের চুমুকেই দেখা মিলে জেলার যেকোনো প্রান্ত থেকেই ।

সকালের ঝলমলে সূর্যের আলোয় শ্বেত শুভ্রতার সাথে বর্ণিল আলো ছড়িয়ে প্রকৃতিপ্রেমী মানুষদের মুগ্ধ করা সেই কাঞ্চনজঙ্ঘা এবার দেখা দিল খানিকটা দেরিতে। কাঞ্চনজঙ্ঘার অপরূপ রূপ মাধুর্য দৃষ্টি কাড়ছে স্থানীয় লোকজনের সাথে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা পর্যটকদের।

মায়াবী কাঞ্চনজঙ্ঘা উদ্ভাসিত হয়েছে হিমালয়ের বিশালতায়। জেলা থেকে কাঞ্চনজঙ্ঘার দূরত্ব ১৬৫ কিলোমিটার হলেও, দেখে মনে হবে যেন প্রবাহমান মহানন্দা নদের উল্টোপাড়েই প্রতিবিম্ব ফেলে দাঁড়িয়ে আছে মায়াবী কাঞ্চনজঙ্ঘা। জেলার যেকোনো প্রান্ত থেকেই কাঞ্চনজঙ্ঘার দেখা মিললেও সবচেয়ে স্পষ্ট দেখায় তেঁতুলিয়া ডাকবাংলো এলাকা থেকে। কেননা এখান থেকে কাঞ্চনজঙ্ঘার দূরত্ব মাত্র একশ কিলোমিটার, সাথে ভারতীয় সীমান্তে দীর্ঘ ফাঁকা জায়গা। তাই তো সকালে চায়ের কাপে চুমুক দিয়ে প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্য একনজর উপভোগ করতে এরই মধ্যে তেঁতুলিয়া ডাক বাংলোতে জড়ো হতে শুরু করেছেন শত শত সৌন্দর্যপিপাসু মানুষ। ঢাকা,খুলনা,বগুড়া ও দিনাজপুর থেকে পর্যটকরা বলেন, পঞ্চগড়ের নৈস্বর্গিক সবুজ প্রকৃতি আর কাঞ্চনজঙ্ঘার অপরূপ সৌন্দর্য দেখে মুগ্ধ মানুষেরা বলছেন, নিজের দেশের মাটি থেকে প্রতিবেশি দেশে থাকা কাঞ্চনজঙ্ঘার অপরূপ সৌন্দর্য তাদের বিমোহিত করছে। মেঘমুক্ত আবহওয়া থাকায় খালি চোখে স্পষ্ট কাঞ্চনজঙ্ঘার মনোমুগ্ধকর দৃশ্য প্রকৃতিপ্রেমী লোকজনের মন ভড়িয়ে দিচ্ছে। এদিকে তেঁতুলিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোহাগ চন্দ্র সাহা জানান,প্রতিবারে মতো এবারও দেশের বিভিন্ন জায়গায় থেকে আসা পর্যটকদের চলাফেরায় নিরাপত্তা ও রাত যাপনে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

প্রকৃতির অপার সৌন্দর্য কাঞ্চনজঙ্ঘা সূর্যের সাথে লুকোচুরি খেলে তার নিজের রূপকে প্রকাশ করছে বর্ণিল সাজে। কখনও টুকটুকে লাল, কখনও কমলা আবার কখনও হয়ে ওঠে কালো। যখন যে রঙেই ধারণ করুক না কেন কাঞ্চনজঙ্ঘার নয়ানাভিরাম দৃশ্যের সাথে উত্তরের নীলআকাশও যেন আরও উজ্জল হয়ে পর্যটকদের দৃষ্টি কাড়ছে।