বিএনপি দেশকে অস্থিতিশীল করার অপচেষ্টায় লিপ্ত- হানিফ

বিএনপি দেশকে অস্থিতিশীল করার অপচেষ্টায় লিপ্ত- হানিফ
ছবিঃ সংগৃহীত
এস এম আওলাদ হোসেন, সিনিয়র রিপোর্টার।।
খালেদা জিয়ার চিকিৎসার নামে বিএনপি দেশকে অস্থিতিশীল করার অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ।
বৃহস্পতিবার (৯ ডিসেম্বর) দুপুরে লক্ষ্মীপুর জেলা স্টেডিয়াম মাঠে জেলা আওয়ামী লীগের তৃণমূল বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন হানিফ।
হানিফ বলেন, “খালেদা জিয়া সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন। তবে তিনি বাংলাদেশের আইনে একজন সাজাপ্রাপ্ত আসামি। তারপরও তাকে জেলখানায় সর্বোচ্চ সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হয়েছে। এখন প্রধানমন্ত্রী তার হাতে থাকা ক্ষমতার সর্বোচ্চ ব্যবহার করে খালেদা জিয়াকে জেলখানার বাইরে চিকিৎসার সুযোগ করে দিয়েছেন।”
আওয়ামী লীগের এই নেতা আরও বলেন, “তিনি (খালেদা) এখন বাংলাদেশের সবচেয়ে ব্যয়বহুল এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। খালেদা জিয়ার চিকিৎসক ছাড়া ওই হাসপাতালের কোনো চিকিৎসক আজ পর্যন্ত খালেদা জিয়াকে বিদেশে চিকিৎসা নিতে হবে, এমনটি বলেননি। আবার বিএনপির পক্ষ থেকেও সুনির্দিষ্টভাবে কোন দেশে নিয়ে তাকে চিকিৎসা করাবে, সেটি বলছে না। তারা খালেদা জিয়ার চিকিৎসার দাবিতে প্রতিদিন প্রেসক্লাবের সামনে গিয়ে আন্দোলন করছে।” 
প্রধানমন্ত্রী কোনো অন্যায় পছন্দ করেন না জানিয়ে হানিফ আরও বলেন, “ডা. মুরাদের বিষয়ে যখনই তিনি শুনেছেন, তখনই তিনি ব্যবস্থা নিয়েছেন। ইতিমধ্যে তাকে মন্ত্রিত্ব থেকে ও জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। আওয়ামী লীগের পরবর্তী নীতিনির্ধারণী সভায় তার বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”
খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসার বিষয়ে মাহবুব উল আলম হানিফ আরও বলেন, “আন্দোলন করে কোনো লাভ হবে না। খালেদা জিয়াকে বিদেশে চিকিৎসার জন্য যেতে হলে রাষ্ট্রপতির কাছে দণ্ড মওকুফ চেয়ে আবেদন করতে হবে। রাষ্ট্রপতি তার দণ্ড মওকুফ করলে তিনি বিদেশে গিয়ে চিকিৎসা করাতে পারবেন। এ ছাড়া কোনো বিকল্প পথ খোলা নেই।”