সাঘাটা উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন ও কাউন্সিল অনুষ্ঠিত

সাঘাটা উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন ও কাউন্সিল অনুষ্ঠিত

আবু তাহের, ষ্টাফ রিপোর্টার।।আওয়ামীলীগ প্রাচীনতম দল। সংকটময় মুহুর্তে আওয়ামীলীগের জন্ম হয়েছিল। এ রাজনৈতিক দলটি ত্যাগের দল। আওয়ামীলীগকে কেহ ধংস করতে চাইলেও ধংস করতে পারবে না।

 বিএনপি যখন ক্ষমতায় ছিল তখন তারা দেশে বিভিন্ন নৈরাজ্য সৃষ্টি করেছিল। বিএনপি দূর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন ছিল। বিএনপি সরকারের আমলে দেশে খাদ্যের ঘাটতি ছিল। কিন্তু আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় এসে জননেত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে মানুষের মৌলিক চাহিদা মেটাতে সক্ষম হয়েছে। 


এখন মানুষকে আর না খেয়ে থাকতে হয়না। দেশের অগ্রযাত্রার ধারাবাহিকতাকে অব্যাহত রাখতে ঐক্যবদ্ধ ভাবে সমন্বয়ের মাধ্যমে আওয়ামীলীগের কমিটি গঠন করার আহবান জানান। 
১৭ই জুন  সাঘাটা উপজেলা আওয়ামীলীগের আয়োজনে উপজেলা পরিসদ চত্বরে ত্রিবার্ষিক সম্মেলন ও কাউন্সিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সাবেক নৌ পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান এমপি এসব কথা বলেন।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ওয়ারেছ আলী প্রধানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সামশীল আরেফিন টিটুর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড: হাসান মাহমুদ তার বক্তব্যে বলেন খেটে খাওয়া মানুষের পশ্চাতপদে মানুষের কথা বলার জন্যই আওয়ামী লীগের সৃষ্টি হয়েছে।
 বিএনপি পদ্মাসেতু নির্মাণ নিয়ে  অপপ্রচার সহ বাধাঁ দেয়ার ক্ষেত্রে বিভিন্ন অপকৌশল অবলম্বন করেছিল। কিন্তু শেখ হাসিনা তার দক্ষতার বলে দেশের অর্থায়নে পদ্মাসেতু নির্মান করেছে। এবং তার ছেলে জয় বাংলাদেশকে ডিজিটাল করে দেশের মানুষকে চমক দেখিয়েছে। মানুষ এখন ঘরে বসেই দেশ বিদেশে সরাসরি কথা বলতে পারে। 
পদ্মাসেতু নির্মাণে যারা বাধাঁ দিয়েছিল দেশের মানুষের কাছে তাদের ক্ষমা চাইতে হবে। 
অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সাবেক এমপি এডঃ হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া, সাংগঠনিক স¤পাদক ও সমন্বয়ক রংপুর বিভাগ সাখাওয়াত হোসেন শফিক, সাবেক এমপি এ্যাডঃ সফুরা বেগম রুমি,  জাতীয় সংসদের হুইপ মাহাবুব আরা গিনি এমপি, জেলা আওয়ামীগের  সহ- সভাপতি ফরহাদ আবদুল্লাহ্ হারুন বাবলু , জেলা আওয়ামী লীগের  সাধারণ সম্পাদক আবু বক্কর সিদ্দিক প্রমুখ।