সন্তান হারা পিতা-মাতাকে সান্ত্বনা দেওয়া যায় না; ঘাতকের সর্বোচ্চ শাস্তি কামনা করছি: তাপস

সন্তান হারা পিতা-মাতাকে সান্ত্বনা দেওয়া যায় না; ঘাতকের সর্বোচ্চ শাস্তি কামনা করছি: তাপস
ছবিঃ সংগৃহীত

আজকাল বাংলা ডেস্ক।। সন্তান হারা পিতা-মাতাকে সান্ত্বনা দেওয়া যায় না বলে অনুভূতি ব্যক্ত করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ঢাদসিক) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

করপোরেশনের ময়লাবাহী গাড়ির ধাক্কায় নিহত নটরডেম কলেজের ছাত্র নাঈম হাসানের পরিবারের সদস্যদেরকে সান্ত্বনা দিতে গিয়ে আজ বুধবার (২৪ নভেম্বর) রাতে নগরীর কামরাঙ্গীরচরের জাওলাহাটি এলাকায় গণমাধ্যমকে এই অনুভূতি ব্যক্ত করেন ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, “আসলে সন্তান হারা পিতা-মাতাকে তো সান্ত্বনা দেওয়া যায় না। আমার নিজেরও দুই সন্তান। নিজেই উপলব্দি করি, এটা কি রকম বেদনাদায়ক- মর্মান্তিক ঘটনা। এই কষ্ট ভাষায় প্রকাশ করা যায় না।”

ঘাতক চালকের সর্বোচ্চ শাস্তি কামনা করে ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন “এ রকম গাফিলতি, কোনো অন্যায় বরদাশত করা হবে না। আমরা এরই মাঝে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন থেকে ব্যবস্থা নেওয়া আরম্ভ করেছি। আমরা তদন্ত কমিটি করেছি এবং আমরা এরই মাঝে তাদেরকে চিহ্নিত করেছি। তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা এবং প্রাতিষ্ঠানিক যে কার্যক্রম আছে সেগুলোও আমরা নেব। যাতে করে সুষ্ঠুভাবে বিচার সম্পন্ন হয় এবং সর্বোচ্চ শাস্তি যেন হয়, সেটাই আমরা কামনা করি।”

এ সময় উপস্থিত স্থানীয় সংসদ সদস্য এডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেন, “মেয়র সাহেব তো আছেন। মেয়র সাহেব খোঁজখবর নেবেন। যে কোনো ব্যাপারে মেয়র তিনি সহযোগিতা করবেন, আমরা সহযোগিতা করব। কাউন্সিলরকে দিয়ে যে কোনো সময়, যে কোনো ব্যাপারে খবর দেবেন, চলে আসব। মেয়র সাহেব আপনাদের ব্যাপারে যা করার সবই করবেন।”

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে করপোরেশনের সচিব আকরামুজ্জামান, দক্ষিণ সিটির কাউন্সিলরদের মধ্যে সাধারণ আসনের ৫৫ নম্বর ওয়ার্ডের মো. নুরে আলম, ৫৬ নম্বর ওয়ার্ডের মোহাম্মদ হোসেন, ৫৭ নম্বর ওয়ার্ডের মো. সাইদুল ইসলাম এবং সংরক্ষিত আসনের শেফালী আক্তার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।