৯৯৯-এ ফোন, ২ দিন পর উখিয়ায় অপহৃত উদ্ধার : আটক-৮

৯৯৯-এ ফোন, ২ দিন পর উখিয়ায় অপহৃত উদ্ধার : আটক-৮
ছবিঃ সংগৃহীত

শাহজাহান চৌধুরী শাহীন, ৫ জুন, কক্সবাজার।। জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ থেকে ফোন পেয়ে কক্সবাজারের উখিয়া থেকে অপহৃত একজন গাড়িচালককে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

এ সময় অপহরণকারী চক্রের আট সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়। আটককৃতদের মধ্যে ৬জন পুরুষ ও ২ জন নারী রয়েছে। 
শুক্রবার (৪ জুন) রাতে কক্সবাজার জেলা পুলিশ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মো হাসানুজ্জামান।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ৩১ মে শামসু নামের ওই গাড়িচালক একটি প্রাইভেট কার যোগে দুইজন যাত্রী নিয়ে ঢাকা থেকে কক্সবাজার আসছিলেন। পথে ওই দুই যাত্রী অন্য সহযোগীদের নিয়ে চালকের মুখ-হাত-পা বেঁধে গাড়ির নিয়ন্ত্রণ নেন এবং চালককে কক্সবাজারের উখিয়ার একটি বাড়িতে নিয়ে আটকে রাখেন।


পরে চালকের মোবাইল ফোন থেকে ঢাকায় গাড়ির মালিকের কাছে ছয় লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়। টাকা পাওয়া না গেলে চালককে মেরে ফেলাসহ গাড়ি অন্যত্র বিক্রি করা হবে বলে হুমকি দেয়া হয়।
তখন গাড়ির মালিক ৯৯৯-এর ফোন করেন। এরপর উখিয়া থানার পুলিশের ৩টি চৌকস টিম তিনটি জায়গায় বৃহস্পতিবার (৩ জুন) বিকাল থেকে টানা অভিযান চালিয়ে উখিয়া উপজেলার হলদিয়া পালং ইউনিয়নের পাহাড়ি এলাকার একটি বাড়ি থেকে ওই গাড়িচালককে উদ্ধার করেন। এসময় অপহরণকারী চক্রের আট সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়।
পরে আসামিদের স্বীকারোক্তিতে উখিয়ার রত্নাপালং ইউনিয়নের আরেকটি জায়গা থেকে গাড়িটি উদ্ধার করা হয়।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, জিজ্ঞাসাবাদে অপহরণকারীরা স্বীকার করেছেন , তারা প্রায় সময়ে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে গাড়ি ভাড়া করে কক্সবাজারে নিয়ে এসে অপহরণ, চাঁদাবাজি করে থাকেন।
এ ছাড়া তারা মাদকের চোরাকারবারও করে থাকেন। বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় তাদের মাদকের সিন্ডিকেট রয়েছে।
তারা আরও স্বীকার করেছেন, তারা বিভিন্ন সময়ে জেলে থাকার কারণে বিভিন্ন জেলার লোকজনের সঙ্গে পরিচয় ঘটে এবং জেল থেকে বের হয়ে মাদক ও অপহরণের এই সিন্ডিকেট গঠন করেন।
গ্রেপ্তার অপহরণকারীদের মধ্যে চারজনের বিরুদ্ধে হত্যা, ডাকাতি ও মাদক আইনে মামলা রয়েছে।
তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ শেষে কারাগারে পাঠানো প্রস্তুতি চলছে বলেও সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।